আন্তর্জাতিক

মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি, ভারত–ব্রিটেনের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক

ভারত–ব্রিটেনের মধ্যে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির রূপরেখা প্রস্তুত করতে দু’দিনের ব্রিটেন সফরে এসেছেন বিদেশ সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। ব্রিটেনে পৌঁছনোর পর ওইদিনই সেদেশের বিদেশ সচিব লর্ড তারিক আহমেদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি। আলোচনায় দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক অংশীদারিত্বের নানা বিষয় উঠে আসে। তবে তার মধ্যে সবচেয়ে তাৎপর্য বহন করছে ‘রোডম্যাপ ২০৩০’। করোনা পরিস্থিতিতে নাগরিকদের ভ্রমণ সংক্রান্ত বিধিনিষেধ নিয়েও আলোচনা হয়।

এই বৈঠক শেষে শ্রিংলা বলেন, ‘‌আমি ভারতের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে বিশদে আলোচনা করেছি। আমি উল্লেখ করেছি, ফ্রান্স এখন ভারত থেকে আসা পর্যটকদের ডাবল ডোজ নেওয়া থাকলে, তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে না। আমেরিকাও পর্যটকদের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা কমিয়েছে।’‌ এই পরিস্থিতিতে ব্রিটেনও যেন এমন পদক্ষেপ নেয়, তার জন্য সওয়াল করা হয়েছে। এখন লাল তালিকাভুক্ত দেশ থেকে আসা পর্যটকদের বাধ্যতামূলকভাবে ১০ দিন হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয়। বৈঠক শেষে লর্ড আহমেদের ট্যুইট, শ্রিংলার সঙ্গে আবার দেখা হওয়ায় খুশি।

ওই বৈঠকে শ্রিংলা ও আহমেদ ছাড়া ফরেন, কমনওয়েলথ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অফিসের স্থায়ী আন্ডার সেক্রেটারি ফিলিপ বার্টনও হাজির ছিলেন। গোটা বিশ্বের নিরিখে দুই দেশের ভূমিকা ও সহযোগিতা এবং অংশীদারিত্বের ক্ষেত্রে ভারত ও ব্রিটেনের ভবিষ্যত লক্ষ্য কী হতে পারে সেইসব বিষয় নিয়েই শ্রিংলা-আহমেদ আলোচনা হয় বলে জানা গিয়েছে।

স্বাস্থ্য সম্মেলনে অংশ নিতে আগামী সেপ্টেম্বরে সম্ভবত ভারতে আসবেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এদিন শ্রিংলার বৈঠকে সেই বিষয়েও আলোচনা হয়েছে বলে খবর। পাশাপাশি ভারতের ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস নিয়েও দু’পক্ষের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।